কফির এই ফেসমাস্কে ত্বক হবে দাগ মুক্ত, স্থায়ীভাবে ফর্সা ও উজ্জ্বল!

আমরা ত্বককে ফর্সা করার জন্য অনেক কিছু ব্যবহার করার পর ত্বক ফর্সা হলেও তা দীর্ঘস্থায়ী হয় না । তাই আমাদের এমন রেমেড়ি ব্যবহার করা দরকার যেটি ব্যবহার করলে আমাদের ত্বক স্থায়ীভাবে ফর্সা হবে। বন্ধুরা, আজ আমি আপনাদের এমন একটি রেমেড়ি শেয়ার করতে যাচ্ছি যেটি স্থায়ীভাবে সবচেয়ে তাড়াতাড়ি ফর্সা, উজ্জ্বল ও দাগ মুক্ত ত্বক পাবার উপায়।

এটি কফির ফেসমাস্ক । কফির এই ফেসমাস্কটি খুব ইফেক্টিভ একটি রেমেড়ি । এটি ত্বককে খুব তাড়াতাড়ি ফর্সা করে দিবে । বন্ধুরা, স্থায়ীভাবে ফর্সা, উজ্জ্বল ও দাগ মুক্ত ত্বক পাবার জন্য কফির ফেসমাস্কটি কিভাবে তৈরি করতে হবে চলুন তা জেনে নিই।

স্থায়ীভাবে ফর্সা, উজ্জ্বল ও দাগ মুক্ত ত্বক পাবার জন্য কফি ফেসমাস্ক তৈরির নিয়মঃ
প্রয়োজনীয় উপাদানঃ

কফির ফেসমাস্ক
কপি পাউডার – ১ চামচ
দই – ২ চামচ
মধু – ১ চামচ
ফেসমাস্ক তৈরির ধাপঃ

কফির ফেসমাস্কটি তৈরি করার জন্য প্রথমে একটি ফ্রেশ বাটি নিয়ে এর মধ্যে এই তিনটি উপাদান একসাথে নিয়ে খুব ভালো করে মেশাতে হবে। উপাদান তিনটি মিশে গেলে এটি ব্যবহারের জন্য তৈরি হয়ে যাবে। এরপর একটি ব্রাশের সাহায্যে মুখে এপ্লাই করে নিন। এটি মুখে ব্যবহার করার আগে নরমাল পানি দিয়ে মুখ ভাল করে ধুয়ে নিবেন। মাস্কটি মুখে লাগিয়ে ১৫মিনিট অপেক্ষা করুন ।

১৫ মিনিট পর সার্কুলার মোশনে ত্বককে জেন্টলি ম্যাসাজ করুণ । সার্কুলার মোশনে ৩ মিনিট ম্যাসাজ করার পর কুসুম গরম পানিতে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এরপর টিস্যু বা সুতার কাপড় দিয়ে মুখ মুছে নিতে হবে। কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ার পর আবার ঠান্ডা পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে নিবেন। ত্বক এইভাবে ম্যাসাজের ফলে মুখে ব্লাড সার্কুলেশন বৃদ্ধি পাবে এবং ত্বকের টিস্যু সতেজ হবে ও ত্বক সুস্থ্য হয়ে উঠবে ।

কাজ করার কারণঃ
কফিঃ
কফির মধ্যে আছে কেফেইন ও খুব powerful অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট যা ত্বক হতে ডেড স্কিন টিস্যু রিমুভ করে ত্বককে ফ্রেস ও ইয়াং করে তুলবে। ত্বক হতে রোদে পুড়া কালো দাগ ,তামাটে ভাব ও ত্বকের কালচে রং দূর করে দিয়ে ত্বককে ভিতর থেকে ফর্সা করে তুলে। কফি ত্বকের স্বাভাবিক উজ্জ্বলতা ফিরিয়ে আনার পর দিনের পর দিন ত্বকের উজ্জ্বলতা ধরে রাখে।

টকদইঃ
ত্বকের মধ্যে ব্রণ ও ব্রণের দাগ আমাদেরকে প্রায় অতিষ্ট করে তুলে । টকদই ত্বক হতে ব্রণ ও ব্রণের দাগকে ক্লিন করবে ও ত্বক হতে বয়সের ছাপকে মুছে দিয়ে ত্বককে ইয়াং ও উজ্জ্বল বানাবে ।

মধুঃ
মধুর মধ্যে রয়েছে প্রাকৃতিক ময়শ্চারাইজিং প্রোপার্টি যা ত্বককে ভিতর থেকে ময়শ্চারাইজ করে ত্বককে তুলতুলে নরম ও কোমল করে রাখবে।

নোটঃ
১। ত্বককে এই কফি মাস্কটির সাহায্যে স্থায়ীভাবে ফর্সা রাখার জন্য এই মাস্কটিকে সপ্তাহে ২ বার করা ব্যবহার করুণ ।

বন্ধুরা আপনারা বাড়িতে এই মাস্কটিকে বাড়িতে ট্রাই করুণ । আপনারা খুব ভাল ফলাফল পাবেন।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*